• হোম
  • জাতীয় রাজনীতি ১৯৪৫ থেকে ৭৫
  • উৎসর্গ

উৎসর্গ

ফন্ট সাইজ:

সারা বিশ্বের অন্যতম ক্ষণজন্মা কায়েদ-ই-আযম মোহাম্মদ আলী জিন্নাহ্ ও সূচনা হতে ভারতে রামরাজ্য প্রতিষ্ঠার উদ্যেগী গান্ধী, নেহেরু, প্যাটেল, হিন্দু মহাসভার নেতা শ্যামা প্রসাদ মুখার্জী, সাম্প্রদায়িক কমরেড জ্যোতি বসু এবং তাদেরই অনুসারী পাঠান কোটের মওলানা মওদুদী, দেওবন্দের মওলানা হোসেন আহমদ মাদানী, কংগ্রেস শো-বয় মওলানা আবুল কালাম আজাদ, খাকছার নেতা আল্লামা মাশরেকি প্রমুখদের তদানিন্তন বঙ্গদেশে ২৮টি জেলার মধ্যে ১৬টি মুসলিম প্রধান জেলাকে বাদ দিয়ে বাকি ১২টি হিন্দু জনসংখ্যা প্রধান জেলাকে আলাদা করে হিন্দুবঙ্গ প্রতিষ্ঠা করার প্রচেষ্টার বিরুদ্ধে স্বাধীন সার্বভৌম বঙ্গদেশে প্রতিষ্ঠায় কায়েদ-ই-আযম মোহাম্মদ আলী জিন্নাহ’র সমর্থনে বঙ্গীয় গভর্ণর ফ্রেডরিক বারুজ (Frederick Burrows) এর সক্রিয় সহযোগিতায় আজাদ হিন্দ নেতা সুভাষ চন্দ্র বোস-এর অগ্রজ শরৎ চন্দ্র বোস, বঙ্গীয় প্রধানমন্ত্রী হোসেন শহীদ সোহরাওয়ার্দী, বঙ্গীয় লেজিস লেটিভ এসেমব্লীতে কংগ্রেস পার্লামেন্টারী পার্টির নেতা বাবু কিরণ শংকর রায়, বঙ্গীয় প্রাদেশিক মুসলিম লীগের জেনারেল সেক্রেটারী দার্শনিক আবুল হাসেম, বঙ্গীয় সিডিউল কাস্ট ফেডারেশন প্রেসিডেন্ট পাকিস্তান গণ পরিষদের উদ্বোধনী অধিবেশনের সভাপতি বাবু যোগেন্দ্রনাথ মন্ডল প্রভৃতি স্বনামধন্য বাক্তিরা Free State of Bangale অর্থাৎ অখন্ড সার্বভৌম বঙ্গদেশ প্রতিষ্ঠার যে উদ্যোগ নিয়েছিলেন এবং বঙ্গীয় গভর্ণর এর কাউন্সিল অব মিনিস্টার্স-এর কয়েক বারের মন্ত্রী, ইন্ডিয়ান কাউন্সিলে বাংলাকে রাষ্ট্রভাষা করার দাবী করেছিলেন সেই নবাব নওয়াব আলী চৌধুরী যিনি স্বীয় জমিদারী বন্ধক রেখে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠায় সিংহ ভাগ অর্থ যোগান। আমার বইয়ের এই ‘‘চতুর্থ সংস্করণ’’ তাদের নামে উৎসর্গ করলাম।